মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০১:০৬ পূর্বাহ্ন

মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক বিপ্লব ঘটাতে হবে- রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ

আলমগীর হোসেন
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারী, ২০২০
  • ২৩৩ Time View

মাদককে রুখতে হবে। মাদক যেন ঢুকতে না পারে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। এ ছাত্র সমাজকেই মাদক প্রতিরোধ করতে হবে। মাদক আমাদের সমাজকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। মাদকের বিরুদ্ধে প্রয়োজন একটি নীরব বিপ্লব। মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক বিপ্লব ঘটাতে হবে। নইলে এ দেশ, এ দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো তথা আগামী প্রজন্ম ধ্বংস হয়ে যাবে। কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ১ম সমাবর্তনে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন বিশ্ববিদ্যালয়টির আচার্য ও রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ। ২৭ জানুয়ারি  সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়টির কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে বিকেল ৩ টা ২৮ মিনিটে সমাবর্তনের উদ্বোধন ঘোষণা করেন রাষ্ট্রপতি। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মোঃ আবু তাহেরের সঞ্চালনায় সমাবর্তনে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী। সমাবর্তন বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী শহীদুল্লাহ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চেীধুরী এমপি। এছাড়া কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্যবৃন্দ এবং স্থানীয় সংসদ সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সমাবর্তনে রাষ্ট্রপতি শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনারা উন্নত জাতি তৈরির মহান কারিগর। একজন শিক্ষক জাতির পথপ্রদশর্ক। একজন শিক্ষকের কাজ শুধু শ্রেণিকক্ষে পাঠদানে সীমাবদ্ধ নয়, তিনি জাতির বুদ্ধি ও বিবেককে জাগ্রত করে অন্তরে জ্ঞানের মশাল প্রজ্জ্বলিত করেন। তাই, একজন শিক্ষককে হতে হবে আদর্শ ও ন্যায়নীতির প্রতীক।’ তিনি গ্র্যাজুয়েটদের উদ্দেশ্যে বলেন, নৈতিকতা ও দৃঢ়তা দিয়ে দুর্নীতি ও অন্যায়ের প্রতিবাদ করবে। বিবেকের কাছে কখনও পরাজিত হবে না। এ দেশের খেটে খাওয়া মানুষের কথা ভুলে যাবে না। তাদের শ্রম ও ঘামের বিনিময়ে তোমরা শিক্ষা অর্জন করেছ। এখন সময় এসেছে সেই ঋণ পরিশোধ করার। পৃথিবীর যেই প্রান্তেই থাকো তোমরা এ বিশ্ববিদ্যালয়কে, এ দেশের মাটি ও মানুষকে ভূলে যাবে না। এবারের সমাবর্তনে পাঁচটি অনুষদের মোট ২ হাজার ৮৮৮ জন গ্র্যাজুয়েট অংশ নিয়েছেন। যার মধ্যে স্নাতক ডিগ্রিধারী ১ হাজার ২২২ জন এবং স্নাতক ও স্নাতকোত্তর উভয় ডিগ্রিধারী ১ হাজার ৬৬৫ জন। এদিকে শিক্ষায় অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বিভিন্ন শিক্ষাবর্ষের মোট ১৪ জন শিক্ষার্থীকে চ্যান্সেলর স্বর্ণপদক প্রদান করেন রাষ্ট্রপতি। বিকেল পাঁচটার দিকে সমাবর্তনের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি ঘোষণা করেন রাষ্ট্রপতি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 Suchana Community TV
themebazsuchana231231