শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৬:২৬ পূর্বাহ্ন

১৭’ বছর পর টেস্ট খেলতে পাকিস্তানে টাইগাররা

সূচনা. টিভি স্পোর্টস ডেস্ক
  • Update Time : বুধবার, ৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ২২৫ Time View

২০০৩-এ পাকিস্তানের মাটিতে শেষ টেস্ট সিরিজ খেলেছিল বাংলাদেশ দল। প্রথম ম্যাচ করাচি ও শেষটি পেশোয়ারে। এরপর দুই দলের খেলা সব টেস্টই বাংলাদেশের মাটিতে। ১৭ বছর পর গতকাল টেস্ট খেলতে পাকিস্তান গেছে বাংলাদেশ দল। এবার সিরেজের প্রথম টেস্ট খেলা হবে রাওয়ালপিন্ডিতে। ১৪ সদস্যের দলের সঙ্গে আছেন জাতীয় দলের নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন। তিনিই এই দলের একমাত্র সদস্য যার হৃদয়ে অম্ল-মধুর স্মৃতি পাকিস্তানে শেষ টেস্ট সফরের। দারুণ লড়াই করে সিরিজ হেরেছিল খালেদ মাহমুদ সুজনের দল।বাশার প্রথম ম্যাচে ৭১ রান আর দ্বিতীয়টিতে ৩ রানের জন্য সেঞ্চুরি হাতছাড়া করেন। এ সফরে কেমন করবে মুমিনুল হক সৌরভের দল? দেশ ছাড়ার আগে বাশার জানালেন আগের চেয়ে কঠিন চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে এবার বাংলাদেশের জন্য। তিনি বলেন, ‘দারুণ ফর্মে থাকা একটি দল নিয়ে যাচ্ছি। প্রায় সবাই বিসিএল-এ রান পেয়েছে। তবে আমি মনে করি এত সহজ হবে না। তাদের মাটিতে বড় চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে আমাদের জন্য। যদি ভালো করতে হয় তাহলে নিজেদের শতভাগ ও সেরাটাই দিতে হবে মুমিনুলদের।’
২০০৯-এ লাহোর টেস্টে শ্রীলঙ্কা দলের ওপর বন্দুক হামলার পর বাংলাদেশ আর পাকিস্তান সফরে যায়নি। সবশেষ ২০১২তে একটি পূর্ণাঙ্গ টেস্ট সিরিজ খেলতে যাওয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত পিছু হটে টাইগাররা। তবে এ বছর নানা নাটকের পর তিন দফায় পাকিস্তান সফরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। প্রথম দফায় ২২শে জানুয়ারি টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে লাহোর যায় মাহমুুদুল্লাহ রিয়াদের দল। তবে দুই ম্যাচে টানা হেরে সিরিজ খোয়ায়। শেষ ম্যাচে বৃষ্টিতে ভেসে গেলে ২৮শে জানুয়ারি দেশে ফিরে আসেন রিয়াদরা। দ্বিতীয় দফায় টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে গতকাল ফের পাকিস্তান গিয়েছে মুমিনুল হক সৌরভের দল। এবার আর সরাসরি ভাড়া করা বিমানে নয়। কাতাদের দোহা হয়ে প্রায় ১৩ ঘণ্টার সফর শেষে পাকিস্তান পৌঁছাবে টাইগাররা। গতকাল সন্ধ্যা ৬ টা ৫০ মিনিটে কাতার এয়ার লাইন্সের একটি ফ্লাইটে করে দেশ ছাড়ে ১৪ সদস্যের টেস্ট দল।
আগের দিন অধিনায়ক মুমিনুল এই সফর যাওয়ার প্রস্তুতি নিয়ে বলেন, সবকিছু বিবেচনা করলে আমার কাছে মনে হয়েছে প্রস্তুতি ভালো হয়েছে। অবশ্য প্রধান কোচ কথা বলেছেন মোটেও অদর্শ প্রস্ততি নিয়ে পাকিস্তানে টেস্ট খেলতে যাচ্ছে না বাংলাদেশ। যাই হোক, হাবিবুল বাশার মনে করেন টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে ভালো করা বাংলাদেশের জন্য খুবই প্রয়োজন। তিনি বলেন, ‘আমরা যখন গিয়েছিলাম সেটা তো অনেক আগে। তখনকার পাকিস্তান এমন ছিল না, আমাদের দলটিও এখনকার মতো ছিল না। এখন অনেক শক্তিশালী আমাদের দল। তবে নিজেদের মাটিতে অনেক ওরাও শক্তিশালী। আমরা সম্প্রতি কয়েকটি টেস্টে ভালো করিনি, তবে এটা আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ ভালো কিছু করার। কারণ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপটা আমরা ভালোভাবে শুরু করতে পারিনি। যদি ঘুরে দাঁড়াতে হয় তাহলে এটা অনেক ভালো এবং বড় একটি সুযোগ আমাদের জন্য।’ দলের তরুণ ও নতুনর সদস্যরা মুখিয়ে আছেন। অফস্পিনার নাঈম হাসান বলেন, ‘আমার লক্ষ্য থাকবে ভালো জায়গায় বোলিং করা। প্রস্তুতি আল্লাহ্?র রহমতে অনেক ভালো। বিসিএল খেলাতে আমাদের বেশ উপকার হয়েছে।’ অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহীম নেই। বিকল্প হিসেবে একাদশে মিলবে পারে তরুণ ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্তর। আর শান্ত বলেন, ‘কোচ এবং আমি আত্মবিশ্বাসী। সাদা পোশাকে সময়টা ভালো যাচ্ছে না। এগুলো নিয়ে খুব বেশি চিন্তা করছি না এখন।’ আরেক তরুণ ব্যাটসম্যান সাইফ হাসানও আশাবাদী। তামিম ইকবালের সঙ্গে তাকে ওপেন করতে দেখা যেতে পারে বলে জানিয়েছেন প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 Suchana Community TV
themebazsuchana231231