রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৬:১৫ পূর্বাহ্ন

মানসিক চাপ কমাতে সেই বিতর্কিত কাজ করেছিলেন বিল ক্লিনটনের!

ডেস্ক রিপোর্ট :
  • Update Time : শনিবার, ৭ মার্চ, ২০২০
  • ২০০ Time View

মানসিক চাপ এবং উদ্বেগ কমানোর উপায় হিসেবেই মনিকা লিউনস্কির সঙ্গে তার সম্পর্ক হয়েছিল বলে দাবি করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন।

২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের পাবলিক জীবন নিয়ে ‘হিলারি’ নামে যে তথ্যচিত্র তৈরি করা হয়েছে, ওই ধারাবাহিক তথ্যচিত্রের অংশ হিসেবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তাদের ওই সম্পর্কের সময় লিউনস্কি ছিলেন হোয়াইট হাউজে ২২ বছর বয়সী একজন শিক্ষানবিশ।

১৯৯০ এর দশকের শেষদিকে প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন মনিকা লিউনস্কির সঙ্গে তার সম্পর্কের বিষয়টি সংবাদমাধ্যমে প্রধান খবর হয়ে ওঠে। প্রথমে ওই সম্পর্কের কথা অস্বীকার করেন মি. ক্লিনটন। তবে পরবর্তীতে স্বীকার করেন যে, তার সঙ্গে অসঙ্গত ঘনিষ্ঠ শারীরিক সংস্পর্শ’ হয়েছিল।

মার্কিন টেলিভিশন নেটওয়ার্ক এবং তথ্যচিত্র নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ‘হুলু’কে মি. ক্লিনটন বলেছেন, ‘আমি যা করেছি, তা খারাপ ছিল, কিন্তু এটা এরকম ছিল না যে, কাজটা আমি ভেবেচিন্তে করেছি।’

মনিকা লিউনস্কির সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে তদন্তকারীদের কাছে মিথ্যা বলার অভিযোগে ১৯৯৮ সালে বিল ক্লিনটনকে ইমপিচ করা হয়। কিন্তু সিনেটের শুনানিতে তিনি রেহাই পান।

১৯৯৮ সালে মার্কিন গণমাধ্যমে এ সংক্রান্ত খবর প্রকাশিত হওয়ার পর মি. ক্লিনটনের প্রাথমিক প্রতিক্রিয়া ছিল ‘ওই নারীর সঙ্গে আমার কোন যৌন সম্পর্ক ছিল না’।

মিজ লিউনস্কি উল্লেখ করেনে যে, সাবেক প্রেসিডেন্টের সঙ্গে তার সম্পর্ক পারস্পরিক সম্মতিতে হয়েছে কিন্তু তিনি একে ‘ক্ষমতার চরম অপব্যবহার’ বলে বর্ণনা করেছেন।

তিনি বলেছেন, সেই সময় পরে কি হতে পারে, তা নিয়ে তার সামান্যই ধারণা ছিল। সেই সম্পর্ক করার জন্য তিনি প্রতিদিনই অনুশোচনায় ভোগেন।

২০১৪ সালে ভ্যানিটি ফেয়ার পত্রিকাকে মিজ লিউনস্কি বলেছিলেন, তার শক্তিশালী অবস্থান রক্ষার জন্য যখন আমাকে একটি বলির ছাগল বানানো হয়েছিল তখন কোনও আপত্তি’ আসেনি।

ওই ঘটনার সম্পর্কে হিলারি ক্লিনটন বর্ণনা করছিলেন যে, ‘ব্যক্তিগতভাবে আমি খুবই আহত হয়েছিলাম এবং আমি বিশ্বাস করতে পারছিলাম না যে, তুমি মিথ্যা বলেছ। এটা ছিল ভয়ানক এবং আমি বলেছিলাম, এটা যদি জনসম্মুখে প্রকাশ পায়, তাহলে চেলসির কাছে তোমাকেই বলতে হবে।

তিনি ব্যাখ্যা করছিলেন যে, আমি আমার স্বামীর সঙ্গে থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেই। অনেকে হয়তো মনে করেন যে, আমি ঠিক কাজটি করেছি এবং অনেকে মনে করেন আমার সিদ্ধান্ত ছিল ভুল।

মি. ক্লিনটন বলেছেন, তাদের কন্যার কাছে এ সম্পর্কের বিষয়ে বলার ব্যাপারটি ছিল সবচেয়ে ভয়াবহ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 Suchana Community TV
themebazsuchana231231