মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০২:১৭ পূর্বাহ্ন

তিতাসে অসুস্থ্য মাকে দেখতে এসে হামলার শিকার প্রবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : সোমবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৯
  • ৩৪৬ Time View

কুমিল্লার তিতাস উপজেলার শাহপুর গ্রামে অসুস্থ্য মাকে দেখতে এসে হামলার শিকার হয়েছিলেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, সমাজসেবক, মালয়েশিয়া প্রবাসী ও রহমত আলী সরকারের ছেলে নাসির উদ্দিন সরকার। চলতি বছরের ১৩ জুন তিতাসের শাহপুর উত্তর পাড়া গ্রামে তার উপর এ হামলা চালানো হয়। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায়। নাসির উদ্দিন সরকার জানান, তার মা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি থাকায় তাকে দেখতে দেশে আসেন তিনি। মাকে দেখার পর গ্রামের বাড়িতে পরিবার পরিজনের সাথে দেখা করে রাতে ঢাকায়  ফেরার পথে শাহপুর উত্তরপাড়া জামে মসজিদের সামনে পৌঁছলে একই গ্রামের মৃত. আইয়ূব আলীর  ছেলে মোঃ রফিকুল ইসলাম, তার ভাতিজা এবং বহিরাগত ২৫/৩০ জনকে নিয়ে তার উপর দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হামলা চালানোর অভিযোগ করেন নাসির। এঘটনায় নাসিরের স্ত্রী বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। সরেজমিন এলাকায় গিয়ে জানা যায়, নাসির উদ্দিন সরকার এবং মোঃ রফিকুল ইসলামের মধ্যে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন যাবৎ বিরোধ চলে আসছিলো। পরে গ্রাম্য শালিসে এলাকায় এসবের মীমাংসাও করা হয়। কিন্তু নাসির উদ্দিন সরকারের এলাকায় আসাটা কিছুতেই মেনে নিতে পারছিলো না রফিকুল ইসলাম। তবে নাসির উদ্দিন সরকার নিজ এলাকায় মসজিদ,মাদরাসা, এতিখানা, রাস্তা-ঘাট ও সামাজিক কাজে নিয়মিত আর্থিক সহযোগিতা আসছেন। নাসির উদ্দিনের এসকল সামাজিক ও উন্নয়নমূলক কাজে ঈর্ষান্নিত হয়ে রফিকুল ইসলাম সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে  নামে বেনামে আইডি দিয়ে নাসির উদ্দিনের বদনাম রটাতে থাকে। এসব মিথ্যাচারে গ্রামবাসী তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে রফিকের বিচার দাবি করেছেন। ইউপি সদস্য হানু বেগম জানান, এই রফিক তার লোকজন দিয়ে মালয়েশিয়াতে আমার স্বামী সুন্দর আলীকে হত্যা করিয়েছে। সেই সময় মামলাও হয়েছে। কিন্তু  রফিকের ভয়ে এবং হুমকি ধামকিতে আমরা এখন জীবনের নিরাপত্তা হীনতায় রয়েছি। বেশ ক’বছর আগে শাহপুর গ্রামের আব্বাস আলীর ছেলে হাসান আলীর মাছের প্রজেক্টের ৮৪ হাজার মাছ মেরে ফেলেছিলো এই রফিক। আনুমানিক যার মূল্য প্রায় ১০ লাখ টাকা ছিলো। তখন মামলা করলে রফিকের দাপটের কারণে তিনি সঠিক বিচার পাননি। ১৩জুনের হামলার ঘটনা সম্পর্কে মজিদপুর ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন সরকার বলেন, এটা অত্যন্ত অনাকাংখিত ঘটনা ছিলো। আসলে তারা নিজেদের আধিপত্ব বিস্তার করতে গিয়ে এলাকায় অস্থিরতা সৃষ্টি করছে। তবে বহিরাগতদের দিয়ে নাসিরের উপর হামলার ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। তিতাস থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মোঃ মঞ্জুর কাদের ভূঁইয়া বলেন, সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে নাসির উদ্দিনের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সঠিক নয়। তার বিরুদ্ধে তিতাস থানায় কোন মামলা নেই। এব্যাপারে মোঃ রফিকুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, আনিত এসব অভিযোগ মিথ্যা,বানোয়াট ও উদ্দেশ্যমূলক। এঘটনার সাথে আমি কোনো ক্রমেই জড়িত নয়। আমার বিরুদ্ধে একটি মহল মিথ্যাচার করছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 Suchana Community TV
themebazsuchana231231